Wednesday, September 21, 2016

ইউটিউব চ্যানেল আছে কিন্তু ভিডিও বানানোর আইডিয়া নেই?এদিকে আসুন

আমরা অনেকেই ইউটিউবে কাজ করে থাকি কিন্তু আমাদের ভিডিও খুব একটা ভাল ফলাফল দেয় না।এর কারন আপনার ভিডিও টি হয় তো মান সম্মত নয়।আবার দেখা যায় আপনারা মধ্যে অনেকেই আছেন যারা দিন ভর চিন্তা করেন যে কি নিয়ে ভিডিও বানালে ভাল ভিউ পাবেন।কিন্তু দিন শেষ ভাল কোন আইডিয়া না পেয়ে এ্যাডাল্ট বানানোর চেষ্টা করেন।অথবা এমন কিছু নিয়ে ভিডিও বানান যার কোন মূল্য নেই।ফলে ভিজিটর আপনার চ্যানেলে এসেও ভিডিও টি দেখে না।মনে করুন আপনি একজন ভিজিটর,এখন আপনি ভাল ভাবেই জানেন আপনি কেমন ভিডিও দেখবেন।অবশ্যই এমন ভিডিও নয় যেটি আপনার দেখতে মোটেও ভাল লাগবে না।তো চলুন আমি এই পোষ্টে আপনাদের কিছু আইডিইয়া দেব।আশা করি কাজে লাগবে।

3D এনিমেশন তৈরি করুন ইউটিউব ক্যারিয়ার গরুন । 3D ANIMATION FOR YOUTUBE BY BLENDER (PART 1)


বিনোদনঃবিনোদন বর্তমানে এমন একটা জিনিস যেটা সবাই কম বেশি খোজে।হাজার ব্যস্ততার মাঝেও সবাই চেষ্টা করে একটু বিনোদনের আপডেট জানতে।এমনও অনেক মানুষ আছে যারা অনলাইনে এসে সম্পূর্ণ সময় বিনোদনের সাথেই কাটিয়ে দেয়।বিনোদন নিয়ে বেশি কিছু লিখলাম না।কারন আমি কয়েক দিন আগে একটা পোষ্ট করেছি,যেটা শুধু মাত্র বিনোদন নিয়ে।আমার বিনোদন নিয়ে পোষ্টটি দেখলেই আপনি সম্পূর্ণ ধারনা পেয়ে যাবেন।

3D এনিমেশন তৈরি করুন ইউটিউব ক্যারিয়ার গরুন । 3D ANIMATION FOR YOUTUBE BY BLENDER (PART 2)


Funny ভিডিওঃআমরা অনেকেই ইউটিউবে ফানি ভিডিও দেখি।আপনারা ভাল করেই জানেন ফানি ভিডিও এর চাহিদা কেমন।তাই আমি আর বলছি না।
ফানি ভিডিও বানানো খুব কঠিন কোন কাজ নয়।আপনি চাইলে কয়েকজন বন্ধু নিয়ে কোথাও ঘুরতে গেলেন,আর সেখানে নিজেরা কিছু ফানি ভিডিও তৈরি করলেন।অথবা নিজেদের মধ্যেই অনেক ভিডিও থাকে যা লোকে দেখতে সমস্যা নেই।তা ও আপনি ইউটিউবে আপলোড দিতে পারেন।আমি কি বলতে চাই তা আরও ভাল বুঝবেন যদি আপনারা সালমান এর ভিডিও গুলো দেখে থাকেন।সালমানকে চেনে না এরকম লোক খুব পাওয়া যায়।সে বাংলাদেশে প্রথম ইউটিউব একাউন্ট খোলে এবং সেখান থেকে আর্ন করে।ইউটিউবে মানুষ তাকে দেখেছে আর এভাবেই সালমান ফেমাস হয়েছে।সে কিন্তু কোন দেশের জজ ব্যারিস্টার নয়।কিন্তু তবুও সে আমাদের অনেকের কাছে প্রিয় এবং অনেক পরিচিত।আর এসব কিছুই সম্ভব হয়েছে ইউটিউবের মাধ্যমে।একদিকে আর্ন অন্য দিকে ফেমাস।দুটই এক সাথে।

3D এনিমেশন তৈরি করুন ইউটিউব ক্যারিয়ার গরুন । 3D ANIMATION FOR YOUTUBE BY BLENDER (PART 3 : THE FINAL PART)


নিজের ফানি ভিডিও ইউটিউবে প্রকাশ করতে না চাইলেও আপনি ইন্টারনেটের অনেক ভিডিও কপি করে এবং সূক্ষ ইডিট করে আপনার চ্যানেলে আর্ন করতে পারেন।তবে এক্ষেত্রে কিছুটা রিস্ক রয়েছে।তবে অনেক অভিজ্ঞ ব্যক্তি আছে যারা এভাবে রিস্ক নিয়ে ও কাজ করে যাচ্ছেন কিন্তু কোন সমস্যার মুখমুখি হচ্ছেন না।

ট্রেইলরঃআমি যাদেরকে মুভি ট্রেইলর নিয়ে কাজ করতে দেখেছি সবাই বিদেশি ট্রেইলর নিয়ে কাজ করে।যদি তাদেরকে জিজ্ঞাসা করা হয় তারা কেন বিদেশি ট্রেইলর নিয়ে কাজ করে,তাহলে তারা উত্তর দিয়ে থাকে যে জায়গা প্রশস্ত এবং ঝুকি কম।বুঝিয়ে বলছি।আপনি ইউটিউবে কিছু ইংলিশ মুভির ট্রেইলর দেখলে বুঝতে পারবেন তারা কিভাবে একটার সাথে আরেকটা মিক্স করে পুরো মুভিটাকেই উলটা বানিয়ে ফেলে।কিন্তু মজার বিষয় হচ্ছে মরলেও লাখ টাকা আর বাচলেও লাখ টাকা।ইংলিশ মুভির এত ফ্যান রয়েছে যে এই উলটা ভিডিও ও তারা সোজা করে দেখে।এই ট্রেইলর ভিডিওতে ভিউ এর অভাব হয় না।কিন্তু এই ভিডিও আপনি যদি ইউটিউবে আপলোড দিতে চান তাহলে আপনাকে প্রচুর ইডিট করতে হবে।কারন এই ভিডিও গুলো ছাড়া মাত্রই ইউটিউব ধরে ফেলে।সাধারনত দেখা যায় এই ভিডিও যারা ইডিট করে তারা এক জায়গা থেকে শুধু ভিডিও নেয়।তারপর ওই জায়গায় অন্য সাইন্ড ব্যবহার করে।এই অন্য সাইন্ড টি তারা রিলেটেড কোন সাউন্ড থেকে কেটে নেয়।আর ভিডিও এর এই জায়গা টায় যদি কথা থাকে তাহলে খুব সূক্ষভাবে শুধু ভয়েসটা কেটে নেয়।
এই সব ভিডিও তে এমন ও অংশ দেখা যায় যে ক্যাপ্টেন অ্যামেরিকার মুভির মধ্যে এমন ভাবে ইডিট করে এক্স ম্যানকে বসিয়ে দেয় যে বোঝাই যায় না।কোন ব্যক্তি যদি এই দুইটা মুভি নিয়ে আগে থেকে কোন ধারণা না রাখে তাহলে সে বুঝতেই পারবে দুটো আলাদা মুভি।সে মনে করবে দুটো একি মুভি।যেমন ম্যান অফ স্টীল মুভিতে হ্রীত্তিক মানে ক্রিশকেও দেখা যায়।ভাবতেই পারছেন এটা কেমন ধরণের ইডিটিং।ইউটিউবে সার্চ দিয়ে man of steel vs krish ভিডিওটি দেখলে আপনি ব্যাপারটা আরও ভাল করে বুঝবেন।

WWE বা রেসলিংঃআমরা wwe এর প্লেয়ারদেরকে ষাড় বলে থাকি।মাথায় বুদ্ধি নেই তাই সামনে পেলেই শুধু গোটাগুতি শুরু করে।কিন্তু আপনি বিশ্বাস করুন আর নাই করুন এটা সত্য যে কিছু মানুষ আছে যারা এই wwe এর ভিডিও আর নিউজ গিলে খায়।তার প্রমাণ আপনি হয়তো আপনার অনেক বন্ধুর মাধ্যমেই পেয়ে থাকেন।এর বেলায়ও বলতে হয় হাতি মরলেও লাখ টাকা আর বাচলেও লাখ টাকা।
এই ভিডিও ইডিট করে আপনি প্রচুর ইনকাম করতে পারবেন।কিন্তু এটা খুব সহজ ব্যাপার না।আবার ইচ্ছার কাছে কঠিন বলে কিছুই নেই।ফেইসবুক,ব্লগ,বিভিন্ন জায়গায় কিছু মানুষ রয়েছে যারা আপনাকে এই wwe  ভিডিও ইডিট করার খুব সুন্দর টিউতোরিয়াল দেবে।যাতে করে রিস্ক থাকেলও আপনি অনেক প্রতি মাসে খুব ভাল আর্ন করতে পারবেন।আপনি কি ভাবছেন এখনই কাজ শুরু করবেন?আরে না একটু দাড়ান।এখনও তো আসল কথাটাই বলালাম না।যারা আপনাকে এই সুন্দর মূল্যবান টিউটোরিয়াল দেবে তারা কি আপনাকে এমনি এমনিতেই দেবে?তারা বিনিময় করে আপনার কাছ থেকে টাকা আশা করবে।হ্যা আপনি তাদেরকে হাজার খানেক টাকা দিয়ে টিউটরিয়াল গুলো নিতে পারেন।তাতে আপনি লাভবানও হবেন।কোন সমস্যায় পড়লে তারা আপনাকে সাহায্যও করবে।
তবে আমি একটু বলি।আপনি কোন শো এর মাঝখান থেকে কেটে নিয়ে আর শেষের একটু কেটে নিয়ে এভাবে মোট ৩টা ভা ৪টা মেস এর ভিডিও বানান তবে সাধারনত ধরা খাবেন না।তবে রিস্ক থেকেই যাবে।আর সব চেয়ে বড় কথা নিজের কমন সেন্স টা কে ও দাম দিতে শিখুন।সুযোগ বুঝে কাজে নামবেন।দরকার হলে কাজ বন্ধ রাখবেন।

মিক্সেড ভিডিওঃহয়তো বুঝে গিয়েছেন আমি কি বলব।হ্যা।আমি বিভিন্ন ভিডিও থেকে কালেক্ট করা বা কেটে জোরা লাগানোর কথাই বলছি।তবে অগোছালো ভাবে নয়,গোছালো ভাবে।
আপনি হয়তো ইউটিউবে অনেক ভিডিও দেখে থাকবেন যে টপ টেন ডাইলগ।অথবা এ বছরের সেরা ১০ টি ডাইলগ,সেরা দশটি গেইম।বা ফাইনাল ডেস্টিনেশন মুভির সেরা ১৫টি মিত্যু ইত্যাদি।এরকম হাজারো ভিডিও ইউটিউবে দেখা যায়।আর এসব ভিডিওতে প্রচুর ভিউও রয়েছে।আপনি এসব ভিডিও নিয়ে ও করতে পারেন।এসব ভিডিও ইউটিউব একটু কম ধরে।কিন্তু কম হলেও ধরে।একটু সাবধানতার সাথে কাজ করুন সমস্যা নেই।

রিভিউঃনতুন মোবাইল কম্পিউটার এর রিভিউ গুলো কেমন চলে তা আপনারা ভাল করেই জানেন।আই ফোন যদি কোন নতুন সেট বের করে তাহলে কেমন ভিউ হবে আপনি কি ধারণা করতে পারেন?আর সব চেয়ে ভাল লাগার বিষয়টি হল এসব ভিডিও তে ইউটিউব কপি রাইট খুব কম ধরে।আপনি কোন রকম ইডিট করে দিলেও ইউটিউব ধরবে না।আর নিজে একটু ভয়েস দিতে পারলে তো কোন কথাই নেই।ইউটিউব এই রিভিউ এর ভিডিওতে এত কম কপি রাইট ধরে যে না ধরার মতই।তবে নতুন ভিডিও গুলো হালকা পাতলা হলেও সুন্দর ইডিট দিবেন।আর এতে ভিউ ও ভাল পাবেন।


আপনি এভাবে কাজ করে যান।আশা করি খুব ভাল ফলাফল পাবেন।কোন সমস্যা হলে টিউনের নিচে কমেন্ট করে দিবেন।আমরা সমধান দেওয়ার চেষ্টা করব।ভিডিও বানানোর আরও অনেক ভাল আইডিয়া রয়েছে।তা আমরা পরবর্তিতে আলোচনা করব।এক দিনে তো আর সব বলা সম্ভব নয়।আমাদের সাথেই থাকুন।শুভ কামনা রইল আপনাদের জন্য।

1 comment: